শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কড়া নির্দেশনা মাউশির

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কড়া নির্দেশনা মাউশির

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কড়া নির্দেশনা মাউশির মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তর। সারাদেশের সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে সংক্ষিপ্ত নামের পরিবর্তে পূর্ণ নাম ব্যবহার করতে আবারও কড়া নির্দেশনা জারি করা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১৫ নভেম্বর) অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক এস এম জিয়াউল হায়দার হেনরী স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ নির্দেশনা দেওয়া হয়। এর আগে ২০২১ সালে ২৮ সেপ্টেম্বর ও ২০২২ সালের ২৮ ফেব্রুয়ারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পূর্ণ নাম ব্যবহারের নির্দেশনা দিয়েছিল মাউশি।

অধিদপ্তর বলছে, এ আদেশ জারির পরে কোনো প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে পূর্ণ নাম ব্যবহার না করার কোনো তথ্য প্রমাণ পাওয়া গেলে সংশ্লিষ্ট উপজেলা বা থানা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার ও প্রতিষ্ঠান প্রধান ব্যক্তিগতভাবে দায়ী থাকবেন। কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা না মেনে পূর্ণ নাম ব্যবহার না করা চাকরিবিধি লঙ্ঘনের শামিল বলেও জানিয়েছে অধিদপ্তর।

বিষয়টি জানিয়ে অধিদপ্তর থেকে জেলা শিক্ষা কর্মকর্তাদের চিঠি পাঠানো হয়েছে। এইচএসসির ফল প্রকাশিত হবে ২৬ নভেম্বর নতুন নির্দেশনায় বলা হয়েছে, কোনো শিক্ষা প্রতিষ্ঠান সংক্ষিপ্ত নাম ব্যবহার করে থাকলে তার পরিবর্তে মূল নাম প্রতিষ্ঠানের প্যাড, মূল গেইট বা অন্য কোনো স্থানে লিখতে হবে।

প্রতিষ্ঠানের প্যাড, মূল গেইট, অন্য যেকোনো স্থানে প্রতিষ্ঠাকাল লিখতে হবে। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের পূর্ণ নামাঙ্কিত মূল গেইটের ছবি তুলে পাঠাতে হবে। সংক্ষিপ্ত নাম পরিবর্তন করে পূর্ণ নাম করার বিষয়ে ব্যানবেইস, শিক্ষা বোর্ড, মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে আবেদন করে নাম পরিবর্তনের বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

অধিদপ্তর থেকে জানা যায়, এখনও অনেক প্রতিষ্ঠান পূর্ণ নাম ব্যবহারের ক্ষেত্রে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা পালন করে নি, যা চাকরিবিধি লঙ্ঘনের শামিল।

এ ক্ষেত্রে মাধ্যমিক পর্যায়ের যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান এখনও প্রতিষ্ঠানের পূর্ণ নাম ব্যবহার করছে না সেসব প্রতিষ্ঠানকে আগামী সাত কর্মদিবসের মধ্যে প্রতিষ্ঠানের পূর্ণ নাম ব্যবহার করে যথাযথ প্রমাণসহ মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরে পাঠাতে বলা হল।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *